ISSN 1563-8685

পরবাস-৭৮ সূচিপত্র





আমার বকখালি বেড়ানো - — অদ্রিজা চক্রবর্তী "বীচে একটা আইসক্রিমের দোকান বসেছিল। সেখানে আমরা আমাদের পছন্দের আইসক্রিম খেয়ে ফটকেকাকুর গাড়িতে উঠে বাড়ির দিকে রওনা দিলাম। বিষ্ণুপুরের কাছাকাছি এসে আমি একটু বমি করলাম। এইভাবে কষ্ট করে বাড়ি ফিরে এসেই চিৎপটাং। ... " (ভ্রমণ)



রুমি যে অন্য রকম - — অনন্যা দাশ "রুমির মা শুনে কী বলবেন ভেবে পেলেন না। এমনিতেও তিনি সবার কাছে রুমির ওই অদ্ভুত ব্যবহারের জন্যে নালিশ শুনে শুনে হয়রান। সুনন্দা জেঠিমা তো সেদিন বলেই বসলেন, “ছেলেরা কখনও কখনও পোকামাকড় নিয়ে খেলা করে শুনেছি কিন্তু মেয়েরা যে ওই সব ঘাঁটে তা তো..." (গল্প)





দিদুনের চাবি - — শতরূপা মুখার্জী "হরিদাসকাকাকে বটুয়া থেকে বাজারের টাকা বের করে দেওয়ার পরে আনমনে দিদুন নাকি চাবির গোছাটাকে পাশের টেবিল এর ওপর রেখে প্রতিমা মাসীকে রান্নাঘরে কিছু বলতে গিয়েছিলেন। ফিরে এসে দেখা গেলো ..." (গল্প)





ধারাবাহিক উপন্যাস
অন্তর্জাল (২) — অঞ্জলি দাশ
"কথা বলতে বলতে দুজনে জলের কাছাকাছি চলে এসেছে। শুনতে পেলো পিছন থেকে কেউ ডাকছে। ঝুপড়িটা থেকে বেরিয়ে আসছে একজন লোক। কাছে আসতে চিনতে পারলো অরুণিমা। ওর নাম আলি। মেয়েদের হস্টেলের গেটে ভারতীয় কসমেটিকস, ইমিটেশান জুয়েলারি বিক্রি করে। কাছে এসে ..." (ধারাবাহিক উপন্যাস)

প্রচ্ছদ | | | |



কালসন্ধ্যা (৪) — মিহির সেনগুপ্ত
"কর্ণ যদি কুন্তির কানীন পুত্র হয়, তার তো বিধিসম্মতভাবে পাণ্ডুরই পুত্র হবার কথা। কানীন পুত্র, ক্ষেত্রজ পুত্র ইত্যাদির প্রচলন, সমাজে ক্রমশ লয় প্রাপ্ত হচ্ছে এবং লোক নিন্দার কারণ হচ্ছে। কিন্তু কুন্তি তো শুনেছি, পাণ্ডুর আদেশে তিনজন পুত্রকে ক্ষেত্রজ প্রথায় ধারণ করেছিলেন এবং ..." (ধারাবাহিক উপন্যাস)

প্রচ্ছদ | | | | | | |



কোথাও জীবন আছে (১১) — শাম্ভবী ঘোষ
"তিলোত্তমা বলল, “আচ্ছা, তুই নিজেই একবার ভেবে বল্‌ ক্লাসে তো এতগুলো লোক ছিল; তুই বেছে বেছে মেয়েগুলোকেই অ্যাকিউজ করছিস কেন? আসল কাণ্ডটা তো ছেলেরা ঘটিয়েছে। অথচ ওদের বিষয়ে একটাও মন্তব্য না করে তুই সমানে মেয়েগুলোর পিছনেই পড়ে আছিস। শ্রদ্ধা মাইট বী স্টুপিড, কিন্তু ..." (ধারাবাহিক উপন্যাস)

প্রচ্ছদ | | | | | | | | | | ১০ | ১১



হারাধন টোটোওয়ালা (৭) — সাবর্ণি চক্রবর্তী
"ঠাকরুনের কাহিনি এদিককার সারা গাঁয়ের লোকজন সবাই জানে। লোকের মুখে মুখে এই গল্প চলে আসছে। সে বহু বছর আগেকার কথা — ইংরেজ কোম্পানির আমল শুরু হয়েছে কি হয়নি। এই পুকুর কাটিয়েছিলেন ..." (ধারাবাহিক উপন্যাস)

প্রচ্ছদ | | | | | | | |


রম্য-ইতিহাস (ধারাবাহিক)
মহাসিন্ধুর ওপার হতে (১০) — অমিতাভ প্রামাণিক
"ছেলেবেলার বন্ধু মুকুন্দসঞ্জয়ের চণ্ডীমণ্ডপে নিমাই টোল খুলে বসল। শচী ভেবেছিলেন নিমাইয়ের যা মেজাজ, ওর কাছে কেউ শিক্ষালাভ করতে আসবে না। তিনি গঙ্গাদাসের কাছে অনুরোধ করেন, তিনি যেন কিছু কিছু নাবালক ছাত্র নিমাইয়ের ..."

| | | | | | | | | ১০ |



প্রবন্ধ, সমালোচনা, রম্যরচনা, স্মৃতিকথা, ...

মধুপুরের পাঁচালি (৪) সমরেন্দ্র নারায়ণ রায়
গল্প, কবিতা, স্মৃতিচারণ--বিচিত্র ক্যানভাসে কিছু দেখা, কিছু শোনা, প্রত্যক্ষ অভিজ্ঞতার সঙ্গে কল্পনার মিশেলে বিচিত্র পাঁচালি (ধারাবাহিক)
এই পর্বে আছে:




দিলীপ "কাঁটা দিয়ে কাঁটা তোলার মানে জানেন? আর গঙ্গাজলে গঙ্গাপুজো? মাছের তেলে মাছ ভাজা? নিশ্চয় জানেন - তার মানে এটাও জানেন যে কুয়োয় কখনো কখনো‌ বালতিটা (বা হাওয়া লেগে শুকনো কাপড়টা) পড়ে গেলে সেগুলো তুলে আনা হয় কাঁটা বলে একরকম ছোট নোঙর ডুবিয়ে। ভালো। ..."



বিহারীনি
"পাহাড়তলীর জঙ্গলেতে
নদীর পাড়ে, আমবাগানে..."





গঝন্ডি
"দেখুন, যা পড়তে যাচ্ছেন তা কোনোভাবেই ভূতের গল্প নয়। সে আশা করবেন না, ভয় পাওয়ার আনন্দ পাঠকের একেবারেই হবে না। এর কারণ হচ্ছে, ভূত আমি দেখিনি। হয়তো শুনে থাকতে পারি, কিন্তু সে তো আর ভূত দেখা হলো না? বুঝলেন তো?..."




বুকের ভিতরে বুক, আর কিছু নয়
শ্রীকুমার চট্টোপাধ্যায়
"চব্বিশ পরগনার প্রত্যন্তের গ্রাম বহড়ু থেকে এক কাঙাল ঢুকে পড়েছিলেন কলকাতায়। সে গত শতকের কথা। বহড়ুর পানাপুকুর আর কলমির গন্ধের সঙ্গে নগর কলিকাতার দূরত্ব কোনোকালেই কমেনি। দু-শতকের ঔপনিবেশিক ললাটলিখন নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকা আমাদের আধুনিকতাকে তিনি ... ..." (প্রবন্ধ; শক্তি চট্টোপাধ্যায় বিভাগ)




দেশান্তরের কথা (১৬) সন্ধ্যা ভট্টাচার্য
"পঞ্চমীর চাঁদের নরম আলোয় আলো-আঁধারিতে পথ চলছি তিনজনে। বাড়ির কাছাকাছি আসতেই ঘটল বিপত্তি। কথায় বলে ‘সাপের লেখা আর বাঘের দেখা’। কপালের লিখনেই সাপে কামড়ায়, ঠিক কথা মনে হল সেদিন। ..." (ধারাবাহিক স্মৃতিকথা)
প্রচ্ছদ | ১ | ২ | ৩ | ৪ | ৫ | ৬ | ৭ | ৮ | ৯ | ১০ | ১১ | ১২ | ১৩ | ১৪ | ১৫ | ১৬ | |



পঞ্চাশ-ষাটের হারিয়ে যাওয়া কোলকাতার চালচিত্র (৭) রঞ্জন রায়
"অনেক রাত্রে ঘুম ভেঙে গেল। ঘরের মধ্যে আলো জ্বলছে। কাকামণির বুক পিঠ জুড়ে ব্যান্ডেজ; ভালরকম লাঠির ঘা খেয়েছে। ঘরে ডেটলের গন্ধ। ছোটকারা নাকি পার্কাসার্কাস বাজারের এক কোণে ..." (ধারাবাহিক স্মৃতিকথা)
প্রচ্ছদ | ১ | ২ | ৩ | ৪ | ৫ | ৬ | ৭ | |



সব কিছু সিনেমায় (৬) — জয়দীপ মুখোপাধ্যায়
"মৃত্যুর একমাস আগেও আমাকে বলেছিলেন একটা ভালো বাংলা গল্পের সন্ধান দিতে। একটা বাংলা ছবি করতে চান তিনি। সে ছবি করার সময়টুকু তিনি আর কাউকে দিয়ে গেলেন না। ভারতীয় সমান্তরাল সিনেমায় তিনি নিঃসন্দেহে এক ‘নীরব ঝড়’। ‘কিছু স্মৃতি কিছু অনুভূতি’ রেখেই ক্লান্ত এক অপরাহ্নে ... " (ধারাবাহিক স্মৃতিকথা)
১ | ২ | ৩ | ৪ | ৫ | ৬ | |



চতুর্থ বাংলা ছন্দ?
সিদ্ধার্থ মুখোপাধ্যায়
“এই লেখাটির মাধ্যমে গুণীজনদের কাছে বাংলা বৃত্তছন্দের তালিকায় ‘তালবৃত্ত’ নামের চতুর্থ ছন্দটির অন্তর্ভুক্তির জন্যও আবেদন রইল।” (প্রবন্ধ)





বাংলা শব্দের পক্ষে ও বিকল্পে
দেবদত্ত জোয়ারদার
"কিন্তু বাংলাভাষা শিক্ষার সামগ্রিক অধোগতির ফলে এমন একটা পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছে যে বাঙালি ‘কেন’ ‘যেন’-র জায়গায় নিশ্চিন্তে ‘কেনো’ ‘যেনো’ লিখছে, ‘হয়’ ‘যায়’-এর জায়গায় ‘হই’ ‘যাই’ লিখছে, অথচ অন্যদিকে অপরের ভুল ধরার একটা ঝোঁক প্রবল হয়ে উঠেছে। কীরকম ভুল?..." (প্রবন্ধ)




নিদ্রাচর মানুষের আখ্যান
শুভময় রায়
"করোনা ভাইরাস আতঙ্কের প্রেক্ষাপটে ইয়াং লিয়াংকে-র [The Day the Sun Died] উপন্যাসটি পাঠ করা এক অদ্ভুত অভিজ্ঞতা। চিন রাষ্ট্রের সার্বিক নবজাগরণের যে স্বপ্ন রাষ্ট্রপ্রধান শি জিনপিং দেখিয়েছেন, লিয়াংকে-র উপন্যাস তার বিপরীতে খাড়া দাঁড়িয়ে আছে একটি দুঃস্বপ্নের মতো। মহামারি যত ছড়ায়, মানুষও ততই .." (গ্রন্থ-সমালোচনা)


ভালো লাগা বইঃ ইয়ং চ্যাংয়ের 'ওয়াইল্ড সোয়ানস': থ্রি ডটারস অব চায়না
ঋতা বসু
"'পনেরো বছর বয়সে আমার দিদিমাকে এক স্বাধীন ক্ষমতাবান সেনাপতি রক্ষিতা হিসেবে গ্রহণ করেন।'--এইভাবে শুরু হয় ইয়ং চ্যাংয়ের এপিক আত্মজীবনী ওয়াইল্ড সোয়ান বইটির নিবিড় পাঠ।..." (গ্রন্থ-সমালোচনা)



নিতাই জানার কবিতা
দেবায়ন চৌধুরী
"আশির দশকের কবি নিতাই জানার প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘রাত্রিমথ’ প্রকাশিত হয়েছিল ১৯৮৮ সালে। ‘লুব্ধক’ (১৯৯০), ‘বঙ্গাল’ (১৯৯২), ‘প্রাকৃতজনের পাণ্ডুলিপি’ (২০০১), ‘আমার কবিতা’ (২০০৬), ‘সুলেমানকে লেখা চিঠি’ (২০১১), ‘এক যে ছিল চাপা পড়া গাছ’ (২০১৭) এবং সাম্প্রতিকতম বই ‘আলোকপ্রাপ্তি’ (২০১৯) মিলে গড়ে উঠেছে ..." (প্রবন্ধ)



পাখির চোখে রূপকথা
অরিন্দম গঙ্গোপাধ্যায়
"এমনই সব চরিত্রেরা ভিড় করে আসে সিদ্ধার্থ মুখোপাধ্যায়ের গল্প সংকলন 'রূপকথা ট্রাভেলস'-এ। এর একটি গল্প ('রূপকথা ট্রাভেলস') দেশ পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে কিছুদিন আগে। কিছু গল্প ..." (গ্রন্থ-সমালোচনা)



শরদিন্দু সাহিত্যে চিত্রনাট্যের উপাদান
ভাস্কর বসু
" শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর জীবনের দীর্ঘ বিশ বছর কাটিয়েছিলেন চিত্রনাট্যকার রূপে। তিনি কিছু কিছু লেখা মৌলিক চিত্রনাট্য রূপেও প্রকাশ করেন। এছাড়াও তাঁর অনেক লেখাতেই ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে চিত্রনাট্যের বেশ কিছু উপাদান, ঠিক সত্যজিতের সাহিত্যের মতই।
এই উপাদানগুলি শরদিন্দু কাহিনিকে অনেক বেশি প্রাণবন্ত করেছে।..."
(প্রবন্ধ)




মা বিশালাক্ষ্মীর নৌকা
শ্রেয়া ঘোষ অনিরুদ্ধ চক্রবর্তীর গল্প-সংকলনের সমালোচনা। (গ্রন্থ-সমালোচনা)





জীবনের রঙিন সুতোয় বোনা নকশিকাঁথা: পিনাকী ঠাকুরের কবিতা
সিদ্ধার্থ সেন
"আমাদের বন্ধুদের পত্রিকা ‘বাতিঘর’-এ ‘সাইকেলে মধুপুর’ কবিতাটি দিতে যেদিন সে এসেছিল সেদিনের আড্ডাটির কথা আজও মনে পড়ে। পরে সেই কবিতাটি তাঁর ‘একদিন অশরীরী’ কাব্যগ্রন্থে সংকলিত হয়। আজ এই লেখা যখন লিখতে বসেছি তখন পিনাকীদা সাইকেলে মধুপুরে পাড়ি দিয়েছে, এখন এই পৃথিবীতে তাঁর শারীরিক অস্তিত্বও নেই। ..." (প্রবন্ধ)



অপচিকিৎসার ইতিহাস (২)
কৌশিক সেন
"শুনতে পাই ডাক্তার ঠ্যাঙানো ব্যাপারটা আপাতত নাকি বঙ্গসংস্কৃতির মূলধারায় ঢুকে পড়েছে। আমাদের মতন যেসব বাঙালি ডাক্তাররা সেই প্রাক-ইন্টারনেট সত্যযুগে দেশত্যাগ করেছিল, তাদের এ নিয়ে বিশেষ উচ্চবাচ্য না করাই উচিৎ। যে মানুষ পলাতক সে বিচারক হতে তো পারেই না, ..." (প্রবন্ধ)



অগ্নিসূত্র
প্রিতম মুখোপাধ্যায় "ত্রিপুরার মাটি-রস নিংড়ে তৈরি হয়েছে এমন উপন্যাসের সংখ্যা কিন্তু বিশেষ বেশি নয়। প্রমিত বাংলায় লেখার অপারগতা, পশ্চিমবাংলার উপন্যাসের গুরুভার আর ককবরক ভাষার গা-ঠেলাঠেলি অতিক্রম করে বাংলা উপন্যাসের আলাদা মাটি নির্মাণ করা বেশ কষ্টসাধ্য হয়ে উঠেছিল ত্রিপুরায়। তার মধ্যেই আমরা পেয়েছি...।" দুলাল ঘোষের উপন্যাসের সমালোচনা। (গ্রন্থ-সমালোচনা)




পদ্ম ঝিলের পারে
ঝর্না বিশ্বাস অতনু দত্তর দুটি বড়ো গল্পের সংকলনের সমালোচনা। (গ্রন্থ-সমালোচনা)







       


গ্রন্থ-সমালোচনা —ভবভূতি ভট্টাচার্য



কবিতা

গুচ্ছ কবিতা - দেবাশিস গোস্বামী

উত্তরের হাওয়ায় - কালীকৃষ্ণ গুহ

তিনটি কবিতা
- আজহার উদ্দিন সাহাজী

ক্লাইমেট চেঞ্জ
- আনন্দ সেন

ছেলেটা
- অংশুমান গুহ

তিনটি কবিতা
- অনুষ্টুপ শেঠ

তিনটি কবিতা
- অরিন্দম গঙ্গোপাধ্যায়

দুটি কবিতা - কমলিকা চক্রবর্তী

লকডাউনের কবিতা - অরণি বসু

তিনটি কবিতা - অর্পিতা ঘোষ

তিনটি কবিতা - প্রণব বসুরায়

স্যান্ ডিয়েগো ২০২০ - নিরুপম চক্রবর্তী

রঙীন বেলুন - সন্দীপন চক্রবর্তী

শঙ্খচিল - পলাশ দাস

দুটি কবিতা - সুদীপ্ত বিশ্বাস

তিনটি কবিতা - সুগত মুখোপাধ্যায়

গোধূলির ডাকপিওন # ৩২, # ৩৩ - সুবীর বোস

ক'জন ছুয়েঁছে সত্যের আঙিনা - সুতপা দাশ ভৌমিক

এ জীবনে প্রেম আসে... - স্বর্ভানু সান্যাল

দুটি কবিতা - সিদ্ধার্থ মুখোপাধ্যায়


গল্প

জাসুসনামা - ইন্দ্রনীল দাশগুপ্ত " “আমিনাবাদের নবাবের একটা বাবুর্চী ছিল। সে একটা এমন বিরিয়ানি বানাত যার গন্ধে মরা মানুষের জিভে জল এসে যায়। ক্রমে সেই বিরিয়ানির গন্ধ আর বাবুর্চীর নাম গোটা আর্যাবর্তে এত ছড়িয়ে গেল যে লোকে বলতে লাগল ওমর খৈয়ামের পর এই একটা লোক ইতিহাসে অমর হয়ে থাকবে বোধহয়। লোকটাকে সবাই বলত—খোশক্‌ বিরয়ান। ... ” (বড়ো গল্প)




অধন্যা - দিবাকর ভট্টাচার্য " যদিও ছোটবেলা থেকেই বাপ-মা মরা মেয়ে ছিলে, শুনেছি তোমার ডাক্তারমামা ছিলেন দেবতুল্য মানুষ। যে মামার বাড়িতে খেয়ে-পরে বড়ো হলে; সেই মামাবাড়ি ছেড়ে চলে গেলে। তারপর তোমাদের কলেজের সিনিয়র সুরজিৎ; তোমায় যথেষ্ট কেয়ার করতো। তার সঙ্গে কি যে হোলো তোমার। ... ”




শাপভ্রষ্ট - সিদ্ধার্থ মুখোপাধ্যায় "বাবা-মা কী একটা জরুরি কাজে মেজকার বাড়ি গিয়েছিল, বলে গিয়েছিল রাতে ফিরবে না। দময়ন্তী ফাঁকা বাড়িতে অনিন্দ্যকে ডেকে নিয়েছিল। ভর সন্ধেবেলা, ভূতে মারে ঠেলা... অনিন্দ্য অস্বীকার করতে পারেনি। দময়ন্তীর তখন ক্যাফে ল্যাতের মতো নিরবচ্ছিন্ন মসৃণ ত্বক, সমুদ্র-শঙ্খের মতো ভরাট ঠোঁট, ... ”




অপদার্থ - কৌশিক ভট্টাচার্য "ওই শাঁকচুন্নি-টি যে কে জগু সেটা ভালো করেই জানে। যমুনাদি — কাঁসারিপাড়া গার্লস স্কুলের হেডমিস্ট্রেস। পুলিশ স্বামীর সাথে মারপিট করতে গিয়ে পরশু রাতে মরেছে, তবে মরার আগে স্বামীটিকে এমন কামড়ে দিয়েছে যে সে বেচারা এখনো হাসপাতালে। বেঁচে থাকতেই জগু ওনার ধারেকাছে যেত না, আর এখন যাবে? পাগল!...




হয়ত এমন রোজ ঘটে বাস্তবে - নাহার তৃণা "তারা সন্দেহ করলো অন্য কেস। একজন এসে কলার চেপে ধরলো তার। আরেকজন পেছন থেকে ঘুষি মারলো ছেলেধরা বলে। এই শুরু হয় গেল জনতার উৎসব। ..."




জাহিরের কাহিনি - হর্হে লুইস বোর্হেস ইংরেজি থেকে ভাষান্তরঃ অংকুর সাহা; "শেষকৃত্যের সমসময়ে, ক্রমাগত পচনের ফলে মৃতদেহ ফিরে পায় তার পূর্বের মুখচ্ছবি। ৬ জুন রাত্তিরের বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির মধ্যে কোন এক মুহূর্তে তেওডেলিনা ভিয়ার অলৌকিকভাবে ফিরে পান তাঁর কুড়ি বছর আগের অস্তিত্ব; তাঁর অবয়ব পুনরুদ্ধার করে সেই কর্ত্বত্ব, যা ঔদ্ধত্য, ধনসম্পদ, যৌবন, ..."




ফাউল প্লে এবং পথ ও পথের প্রান্তে
অতনু দে-র দু'টি গল্পঃ "নাতি-অন্ত প্রাণ বিমলবাবুর। আর নাতি রোহিতও ওঁর খুব ন্যাওটা — ওঁর সঙ্গেই ফুটবল কোচিং ক্লাসে যায়। যদিও ক্লাস এইটে পড়ে — একা যেতেই পারে, তবুও বিমলবাবু সঙ্গে যান। একটু হাঁটাও হয়, তাছাড়া ফুটবল খেলা দেখা হয় বেশ। ..."




জানোয়ার - ফাল্গুনী ঘোষ "আজকাল জামিল আর তার স্যাঙাৎরা বাঘের পায়ের ছাপ দেখেনা। জোয়ার ভাঁটার মতো ভোর আর সন্ধ্যায় মাঝে মধ্যে কেবল বাঘের হাঁকাড় শোনে। সে যাই হোক। বাদাবনের মানুষগুলোর বাঘের ভয় করে থাকলে পেট চলে না। সে-কারণে..."



হলুদ পাতা এবং ইউনিফর্ম
নিবেদিতা দত্ত-র দু'টি গল্পঃ "একটা হলুদ পাতা অল্প হাওয়ায় এদিক ওদিক হয়ে মাটিতে পড়ল। দূরে বেলা চারটের আজান পড়াও শেষ; মাঠ থেকে ছেলেদের হুল্লোড়ের অস্পষ্ট আওয়াজ আসছে। আর একটা পাতা পড়ল, এবারেরটা খয়েরী, ..."




ভাগ - সাগরিকা দাস "সুজাতা এবার ঝিমলির দিকে তাকাল। ঝিমলিই কদিন ধরে বুঝিয়েছিল, একটা আলাদা ফ্ল্যাট খুব দরকার। বাবা-মার আলাদা ফ্ল্যাট হলে ঝিমলি মাঝে মাঝে তবু এসে থাকতে পারবে দু-চারদিন। এতদিন নিজেদের বাড়িতে খোলামেলা প্রচুর জায়গা ছিল তাই, ..."





ইউটোপিয়ার গল্প - রোদ্দুর মিত্র "সে বেলুন বিক্রি করে। সাথে প্লাস্টিকের খেলনা, বাংলা আর ইংরাজী বর্ণমালার বই, নামতার বই, মেয়েদের ক্লিপ, দুল ইত্যাদি ইত্যাদি। লাল, নীল রঙের বেলুনগুলো অনেকটা উঁচুতে বাঁধা থাকে। মনে হয় তাদের কাঁধে ভর দিয়ে অনায়াসে উড়ে যাওয়া যায় রূপকথার দেশে। তখন এই ঘেন্না, ..."



আলপনা-বাড়ি - স্বপ্না রায় "আমার মন তখনই বাড়িটাকে ভালোবেসে ফেলেছে, তার দুটি কারণ। এই আমার প্রথম ভাড়া বাড়িতে এসে থাকা। ছোটবেলায় খুব মনে হত, যারা ভাড়া বাড়িতে থাকে তাদের কি মজা, কত নতুন নতুন বাড়িতে গিয়ে থাকতে পারে, ..."



পরিচয় - — রুমঝুম ভট্টাচার্য "দেবারতি একটু অধৈর্য হয়ে উঠল, কি ব্যাপার এত তো দেরি হয় না। ট্রেনটা ছাড়ছে না কেন? দূরে যেন কোন শোরগোল শুনতে পাচ্ছে। দেবারতি চিন্তায় ডুবে যায়। কিন্তু রুদ্র তার একমাত্র ছেলের সাথে যা করলো সেটা কিছুতেই মেনে নিতে পারছে না দেবারতি। ... "





কান্নার ভাষা - স্বরূপ মণ্ডল " কাকা ছিলেন পাশের ঘরে। বাজার যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। অভিজ্ঞের মতো বললেন, “দ্যাখো, কিছুতে কামড়ে টামড়ে দিল কি না! এমন তো কাঁদে না, কি হল আবার? পেটের গণ্ডগোল হয়নি তো?”
কাকিমা রান্নাঘরে ছিলেন। ..."



ভ্রমণকাহিনি, প্রকৃতি, বাকিসব
ক্যালিফোর্নিয়ার পক্ষীতীর্থ - ছন্দা চট্টোপাধ্যায় বিউট্রা
"খোলা নদীতে পানকৌড়িদের আনাগোনা। এখানে সেখানে বসে দুই ডানা মেলে রোদ পোয়াচ্ছে। আরও আছে বিরাট ধূসর-নীল রঙের গ্রেট ব্লু হেরন, জলের ধারে মাছ, ব্যাঙ, শামুক ইত্যাদি খায়। শীতের শেষে উঁচু গাছের ডালে ..."


ABC — কেঁচে গণ্ডূষ (২) - রাহুল মজুমদার
"সেই ভেঙে পড়া তুষার 'খণ্ডে'র সামনে। এখানেই নাকি ঘটেছিল গতকালের সেই দুর্ঘটনা। তুষারপ্রাচীরের নিচে দাঁড়িয়ে ছবি তোলাতে গিয়েই বিপত্তি। প্রাচীরের একটা অংশ খসে পড়ে সরাসরি ওদের ওপর। একজনের তৎক্ষণাৎ মৃত্যু হয়। অন্য দুজনের অবস্থাও..."


করোনা ডায়েরি--ইতালি থেকে - মানসী ভট্টাচার্য
"এখন পর্যন্ত সব কিছুরই জোগান আছে, মানুষজনও হুমড়ি খেয়ে জিনিসপত্র স্টক করছেন না। প্রথম দু-তিন সপ্তাহ দেশবাসীর পাশে থেকে সকলের মনোবল জোগানোর জন্য ইতালিয়ানদের ব্যালকনিতে গান বাজনার বেশ ধুম ছিল, কিন্তু এখন তা ক্রমশঃ ঝিমিয়ে আসছে। মৃত্যুর ভ্রূকুটি আর অনিশ্চিত ভবিষ্যতের..."




বাঙাল এবং কাঞ্চনজঙ্ঘা - সুনন্দন চক্রবর্তী
"আপনি যদি বাঙাল হন তাহলে খুব ছোটো ছোটো পর্যবেক্ষণ থেকে বড়ো বড়ো সব সিদ্ধান্তে আসার ক্ষমতা আপনার থাকবেই। আমি আট বছর বয়েসে বাবার সঙ্গে দার্জিলিং-এর মাউন্টেনিয়ারিং ইনস্টিটিউট-এ গিয়ে তেনজিং-এর ছবি দেখি এবং ছেলেবেলা থেকেই আমার নাক বোঁচা। সুতরাং ..."


parabaas@parabaas.com
© 1997 - 2020 Parabaas Inc. All rights reserved.