• Parabaas
    Parabaas : পরবাস : বাংলা ভাষা, সাহিত্য ও সংস্কৃতি
  • পরবাস | সংখ্যা ৯২ | অক্টোবর ২০২৩ | কবিতা
    Share
  • ত্রিভুজ : রাজেশ গঙ্গোপাধ্যায়




    প্রথম ভুজ
    লোভ সেই বালির নীচে বয়ে চলা নদীটির মত, কি যেন নাম! মনে পড়েছে, ফল্গু না?
    যাকে দেখা যায় না ওপর থেকে, একটু খোঁড়াখুঁড়ি করলেই জল বেরিয়ে বালি ভিজিয়ে তোলে
    এই খোঁড়াখুঁড়িকেই ভরসা করে, দিব্য অলক্ষ্য প্রবাহে বয়ে যেতে থাকে অপ্রাপ্তি ছুঁয়ে
    এ নদীর জলে আচমন করা যায় না, আগুনও নেভে না, আন্তরিকতায় শ্যাওলা জমে ওঠে
    ‘মুক্তি চাই’ ‘মুক্তি চাই’ বলতে বলতে ক্লান্ত হয়ে পড়ার নাটকের শেষ দৃশ্যে লোভী হয়ে উঠতে ইচ্ছে হয় -
    আমায় বেশী ভুগিও না ঠাকুর, যেন পড়ি আর মরি…

    দ্বিতীয় ভুজ
    স্মৃতির কার্নিশে তেরছা রোদের কবোষ্ণতায় অঘ্রাণ মাস
    স্যোয়েটারের সহস্র ফাঁকায় হাওয়াদুর্গে ধরে রাখি তাপের পাহারা
    পেছনে তাকালে এক সোনার হরিণ, পিছু ধাওয়া করে যাওয়া অমোঘ নিয়তি
    একাকী যে গাছটিতে কটা ফুল ফুটে আছে উঁচু প্রশাখায়, ঝরে যাবে একদিন কাউকে না বলে
    কুড়িয়ে নেওয়ার মত কেউ নেই…ও স্ফটিকজল, তুমি জেনে রেখো আমি রইলাম
    ছাদময় বকম বকম…দুপুর ফুরোচ্ছে দ্রুত…আসলে ফুরোচ্ছে না, ঘুরে গিয়ে দাঁড়াচ্ছে স্মৃতির চৌকাঠে

    তৃতীয় ভুজ
    ভালোবাসা পাখি হয়ে উড়ে যাবে বলে এসে বসেছিল বারান্দায়
    ঘরেও ঢোকেনি, কেন যে ভেতরে ডাকিনি! ওখানেই কথায় কথায় বেলা গড়িয়ে গিয়েছে
    আসক্তির কাছে যত জমা হওয়া ঋণ, অপরিশোধ্য ছিল, অস্বস্তি ছিল না, স্বজনকে কি সৌজন্য দেখায়!
    ভালোবাসা পাখি হয়ে উড়ে চলে গেলে একদিন অস্থাবর ছাপ রয়ে গেল
    অবতলের স্পর্শবিন্দুটিতে হারিয়ে বুঝেছি, ভালোবাসা বলে কিছু নেই
    না-থাকার মত এই তূরীয় বোধের ঢাল বেয়ে নেমে আসে সবান্ধবে আলো


    অলংকরণ (Artwork) : অনন্যা দাশ
  • মন্তব্য জমা দিন / Make a comment
  • (?)